ছাত্রলীগে কোনো অনুপ্রবেশকারী প্রবেশ করতে পারবে না, যাদের রক্তে ছাত্রলীগ তাদেরই আনা হবে নেতৃত্বে বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (ডাকসুর জিএস) গোলাম রাব্বানী।

তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে বাংলাদেশ বির্নিমাণের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রয়েছে সংগঠনটির গৌরবের এক অনন্য সাধারণ ইতিহাস।

মাঝে মধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে নিয়ে কিছু বির্তকের শুরু হলে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী ও ছাত্রলীগের সাংগঠনিক নেত্রী শেখ হাসিনা নিজেই বাছাই করেছেন এবারের ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতৃত্ব। আপা যে পদ্ধতিতে নেতৃত্ব বাছাই করেছেন, ঠিক একই পদ্ধতিতে আমরা নেতৃত্ব বাছাই করব।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে মনোনীত করেছেন। আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতেই নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

শেখ হাসিনার মডেল ছাত্রলীগে কোনো অনুপ্রবেশকারী প্রবেশ করতে পারবে না বলেও ঘোষণা দিয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষহীন, আদর্শিক ও মানবিক ছাত্রলীগই উপহার দিতে চাই।

এবারের ছাত্রলীগে শুধু সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকই কাজ করবেন না, প্রতিটি নেতাকর্মীকে তাদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হবে এবং তাদের কাছ থেকে কাজ আদায় করার দায়িত্ব আমাদের।

শেখ হাসিনার মডেল ছাত্রলীগে মানবিক ছাত্রলীগের বহিঃপ্রকাশ এখনই সবাই দেখতে পাচ্ছেন। বর্তমান ছাত্রলীগ লোভ লালসার ঊর্ধ্বে থেকে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের অধিকার আদায়ে কাজ করতে বদ্ধপরিকর।

বর্তমান ছাত্রলীগের আমলেই সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হবে বলেও আশাবাদী গোলাম রাব্বানী। এছাড়া ছাত্রলীগের গরিব ও মেধাবিদের জন্য আলাদা ফান্ড সৃষ্টিরও পরিকল্পনা রয়েছে। এবার কোনো কমিটি বাণিজ্য হবে না বলেও সাফ জানিয়েছেন তিনি।