* শিক্ষা * শান্তি * প্রগতি

* জয় বাংলা * জয় বঙ্গবন্ধু

শিরোনাম:

চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালিত বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল প্রেস বিজ্ঞপ্তি আপোষহীন মহানায়ক বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষের হৃদয়ে অম্লান হয়ে থাকবে। জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটনের দাবিতে ছাত্রলীগের মৌন মিছিল বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানাতে চেয়েছিল তারেক রহমান: শোভন প্রেস বিজ্ঞপ্তি জাতির পিতার রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ আখ্যা জাতীয় শোক দিবসে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ “সেই কালো রাত এবং বঙ্গবন্ধু” বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফেরাতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা জোরদার করা হয়েছে: কাদের কক্সবাজারকে দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে কোরবানি পশুর বর্জ্য পরিষ্কার করলো জেলা ছাত্রলীগ শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রাণের মানুষদের সমাধিতে গোলাপের পাপড়ি ছড়ালেন শেখ হাসিনা ১৫ ই আগষ্টের খুনি ও ২১ শে আগষ্টের গ্রেনেড হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে যশোর ছাত্রলীগের মানববন্ধন আজ পিতা হারানোর শোকে কাঁদবে বাঙালি “সেই কালো রাত এবং বঙ্গবন্ধু” আগস্টের শোক হোক বাঙালির শক্তি আগস্টের শোক হোক বাঙালির শক্তি

শোভনের আহ্বানে ঘরে ফিরলেন আন্দোলনরত শিক্ষকরা

৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:০৩ প্রিন্ট

ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের আহ্বানে দুই মাসের জন্য আন্দোলন স্থগিত করেছেন ননএমপিও শিক্ষকরা। শুক্রবার বিকালে ছয়টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে উপস্থিত হয়ে শোভন শিক্ষকদের আন্দোলন প্রত্যাহারের আহ্বান জানালে টানা ৫৬ দিন ধরে দলমান আন্দোলন স্থগিত করে ঘরে ফিরে যেতে রাজি হন শিক্ষকরা।

শিক্ষকদের উদ্দ্যেশ্যে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, আপনারা যারা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করছেন তারা সবাই শিক্ষক, মানুষ গড়ার কারিগর। আপনাদের প্রতি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি অন্যরকম, আমার মাও কিন্তু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক, আপনাদের প্রতি সেই সহানুভুতির জায়গা থেকে এখানে আজকে এসেছি।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের পরে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয়করণ করেছিলেন। তবে তা পূর্ণাঙ্গ হওয়ার আগেই ৭৫ এর কালরাত নেমে আসে। তবে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর যেসব বিদ্যালয় এমপিওভুক্তি বাকি ছিল সেসব জাতীয়করণ করে নিয়েছিলেন। এরমধ্যে আপনাদের যেগুলো বাকি আছে সেসবের কিছু না কিছু ত্রুটি ছিল, সে কারণেই বিষয়টি সুরাহা হয় নি।

ছাত্রলীগের সর্বোচ্চ এই নেতা বলেন, সব কিছুরই একটা প্রসেসিং আছে। শুধু প্রধানমন্ত্রী বললেই সব হয়ে যাবে বিষয়টা এমন না। আপনাদের বেতন ভাতার জন্যে এখানে বাজেটসহ বিভিন্ন বিষয় আছে। ফলে সে অব্দি অপেক্ষা করতে হবে।

এসময় শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ায় শিক্ষকদের ধন্যবাদ জানিয়ে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, আপনারা অনেকদিন ধৈর্য ধরেছেন। পরশুদিন ঈদ। আপনারা আমার কাছে গিয়েছিলেন। আমি এখানে আন্দোলনরত মা-বোনদের যে আর্তনাদ দেখেছি, এই ভাবে আন্দোলন চালিয়ে নেয়া যায় না। আমি এখানে আসার আগে নেত্রীর সাথে কথা বলে আসিনি। আমি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে দ্রুত বিষয়টি সুরাহা করা হবে।

ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, দুইদিন পর ঈদ। অথচ আমাদের মা বোনেরা এখানে আন্দোলন করছেন। এজন্যেই আমি এসেছি। নাহলে নেত্রীর সঙ্গে কথা না বলে আসা আমার ঠিক হয় নি। তবুও আমি এসেছি মানবিকতার কথা চিন্তা করে। আমি আজকের এই কথাগুলো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানাবো। সব খুলে বলব। আমার জায়গা থেকে যতটা চেষ্টা করার বুঝিয়ে বলব। যেন বিষয়টা সুরাহা করা হয়। মন্ত্রীর সঙ্গেও বিষয়টা নিয়ে কথা বলব।

তিনি বলেন, আগস্ট শোকের মাস। আবার ঈদও এসেছে। আপনারা বাসায় ফিরে যান। কোরবানির ঈদ হল ত্যাগের, এটা সবার সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিয়ে পালন করুন। সরকার আপনাদের সঙ্গে আছে। আন্দোলন নয়, আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি সুরাহা করতে পারলে সবার জন্যে মঙ্গলজনক। আপনারা নিজেদের অর্থনৈতিক অবস্থা বদলের জন্যে এখানে এসেছেন, আমি বলব স্বচ্ছলতার জন্যে আপনারা নিজেরা শিক্ষকতার পাশাপাশি কিছু করুন।

ছাত্রলীগ সভাপতি আরও বলেন, বর্তমানে সবাই চাকরির দিকে ঝুঁকছে, উদ্যোক্তা হচ্ছেন না। সবাই যে চাকরিই করবে শুধু বিষয়টা এমন না। দেশরত্ন শেখ হাসিনা অনেকগুলো গ্রামীণ উন্নয়ন প্রজেক্ট হাতে নিয়েছেন তারমধ্যে একটা হল একটি বাড়ি একটি খামার। এটা করেও ভাগ্য পরিবর্তন করা যাচ্ছে। সরকার অর্থের সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করছে। বয়স্ক ভাতাসহ বিভিন্ন ভাতা দেয়া হচ্ছে। আরও করা হবে ধীরে ধীরে। তবে সেজন্যে সময় দিতে হবে।

শোভন বলেন, আমরা সবাই বাংলাদেশের জনগন। দেশরত্ন শেখ হাসিনা একাই সব করবেন না। এরজন্যে আমাদের প্রত্যেকটা নাগরিককে ভূমিকা রাখতে হবে। শোভনের বক্তব্যের পর নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতারা বৈঠকে বসেন এবং তার প্রতি আস্থা রেখে কর্মসূচি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেন। শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আগামী দুই মাসের মধ্যে দাবি আদায় না হলে কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন।

এসময় বাংলাদেশ বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বদরুল আমিন সরকার ফরহাদ বলেন, একদিকে শোকের মাস আগস্ট, অন্যদিকে দুইদিন পর ঈদ। আর এইসময়ে ছাত্রলীগের সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে ননএমপিওভুক্ত শিক্ষকদের আন্দোলন দুই মাসের জন্যে স্থগিত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দাবি আদায় না হলে আগামি দুই মাস পর আমরা আবারও নিজেরা বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করব। উল্লেখ্য, প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের দাবিতে ‘বেসরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির’ ব্যানারে চলতি বছরের ১৬ জুন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন চার হাজারের বেশি শিক্ষক। এসময়ে একজন শিক্ষকের মৃত্যুসহ ২৫৯ জন অসুস্থ হয়েছেন। এছাড়া মারাত্মক ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রয়েছেন ১০ জন।

পাঠকের মতামত:

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে