* শিক্ষা * শান্তি * প্রগতি

* জয় বাংলা * জয় বঙ্গবন্ধু

শিরোনাম:

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উদ্যোগে চকরিয়ায় প্রীতি ফুটবল ম্যাচ। বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে নওগাঁয় ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বা‌জেটকে স্বাগত জানিয়ে তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল অসহায় জামিলুরকে ব্যাটারি চালিত রিকশা দিলেন ছাত্রলীগ সম্পাদক বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে বুয়েট ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ‘শুধু একটা স্বপ্নপূরণে মৃত্যুকে হাতে নিয়ে ফিরে এসেছি’ – শেখ হাসিনা প্রস্তাবিত বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বাজেটকে স্বাগত জানিয়ে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের সদস্য হলেন ছাত্রলীগের সভাপতি শোভন ও সঞ্জিত চন্দ্র দাস অার্থিক অনুদানের চেক হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী চকরিয়া ও মাতামুহুরি সাংগঠনিক উপজেলা ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে দোয়া মাহফিল শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল গাজীপুর সদর উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে ছাত্রলীগের গণসংযোগ শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সেই খামারিকে অার্থিক অনুদান সেই খামারিকে ২০০ হাঁস কেনার টাকা দিলেন নেত্রকোনা জেলা ছাত্রলীগ নেতা ফেলানীর পরিবারের পাশে ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন হাঁস হারানো অসহায় আবুল কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ

পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান বসানো সম্পন্ন: দৃশ্যমান হলো প্রায় দুই কিলোমিটার

২৫ মে, ২০১৯, ১:৪০ প্রিন্ট

নানা প্রতিকূলতা কাটিয়ে অপেক্ষার প্রহর শেষে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর ত্রয়োদশ স্প্যান “৩বি” মাওয়া প্রান্তের ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর বসেছে। আজ সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে ১৩ তম স্প্যানটি বসানোর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর এক হাজার ৯৫০ মিটার।

ত্রয়োদশ স্প্যান ‘৩বি’ সেতুর ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর বসার কথা ছিল গতকাল শুক্রবার ২৪ মে। কিন্তু প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে পদ্মাসেতুর ত্রয়োদশ স্প্যান বসানো সম্ভব হয়নি।

আজ শনিবার ২৫ মে সকাল ৮:০০ থেকে শুরু হয় স্প্যান বসানোর কার্যক্রম। সকাল থেকেই পদ্মা উত্তাল, মেঘাচ্ছন্ন আকাশ আর এর মধ্যেই শুরু হয় স্প্যান বসানোর কার্যক্রম।

স্প্যানটি মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের চেষ্টায় সফলভাবে বসেছে। তৃতীয় মডিউলের দুই নম্বর স্প্যান এটি।

উল্লেখ্য, ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ৩৩ হাজার কোটি টাকা।  মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

পাঠকের মতামত:

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে