* শিক্ষা * শান্তি * প্রগতি

* জয় বাংলা * জয় বঙ্গবন্ধু

শিরোনাম:

যেকোনো মূল্যে দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে হবে : ওবায়দুল কাদের চালু হচ্ছে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক জবিতে ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ ‘আ’লীগের শিকড় দেশের মাটিতে প্রোথিত’ : শেখ হাসিনা আ’লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন চোখে অপারেশন না হলে আমিও গিয়ে ধান কাটতাম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোনার বাংলাদেশ গড়ার প্রতিজ্ঞা আ. লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ২৩ জুন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী রেল নেটওয়ার্কে যুক্ত হবে আরও ১৫ জেলা: রেলমন্ত্রী জন্মদিন উপলক্ষে শতাধিক পথশিশুদের খাবার খাওয়ালেন ছাত্রলীগ নেতা রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সহায়তার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর আইপি ক্যামেরার আওতায় আসছে সিলেট চলতি বছর যমুনার ওপর রেল সেতু বাংলাদেশ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের ৪৫ দেশের মধ্যে দ্রুত প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে সব নাগরিককে পেনশন দেয়ার উদ্যোগ ২০২০ সাল থেকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রস্তুতি নেবে বাংলাদেশ আগামী বছরেই শতভাগ মানুষের ঘরে বিদ্যুৎ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীদের ভূয়সী প্রশংসা জাতিসংঘে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য শতবর্ষব্যাপী ডেল্টা প্ল্যান নিয়ে কাজ চলছে : প্রধানমন্ত্রী

পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে বসেছে স্প্যান ৬-সি

২৩ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:৫৫ প্রিন্ট

পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৩ ও ৩৪ নম্বর পিলারের ওপর স্প্যান ৬-সি স্থাপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে স্প্যানটি পিলারের ওপর বসানো হয়। পদ্মা সেতুর সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির স্প্যান বসানোর খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘সকাল ৯ টা ২০ মিনিটে স্প্যানটি বসানোর কাজ শেষ হয়।’

এটি জাজিরা প্রান্তে নবম ও স্থায়ীভাবে বসানো সেতুর দশম স্প্যান। এছাড়া, মাওয়া প্রান্তে একটি অস্থায়ী স্প্যান রাখা আছে। ৬-সি স্প্যানটি বসানোর পর জাজিরা প্রান্তে সেতুর ১৩৫০ মিটার ও মাওয়া প্রান্তের একটি স্থায়ী ও একটি অস্থায়ী স্প্যান মিলে মোট ৩০০ মিটার দৃশ্যমান হল।

সে হিসেবে অস্থায়ী স্প্যানসহ পদ্মা সেতুর ১ হাজার ৬৫০ মিটার দৃশ্যমান হয়েছে। তবে, স্প্যানগুলো ভিন্ন ভিন্ন মডিউলে বসানোর কারণে দৃশ্যমান অংশগুলো এক সারিতে নয় বরং, বিচ্ছিন্নভাবে থাকবে।

এর আগে সোমবার সকাল সোয়া দশটার দিকে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি তিয়ান-ই ক্রেনে করে জাজিরা প্রান্তে ৩৩ ও ৩৪ নম্বর পিলারের কাছে নিয়ে আসা হয়। মুন্সীগঞ্জের মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে রওনা দিয়ে স্প্যানটি সোয়া দুই ঘণ্টায় জাজিরা প্রান্তে পৌঁছে।

পাঠকের মতামত:

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে