* শিক্ষা * শান্তি * প্রগতি

* জয় বাংলা * জয় বঙ্গবন্ধু

শিরোনাম:

২১শে আগস্ট: নেতা-কর্মীরা তাদের জীবন দিয়েই শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়েছে ২১ আগস্টের নিহতদের স্মরণে ছাত্রলীগের ফুলেল শ্রদ্ধা চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃত্বে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালিত বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল প্রেস বিজ্ঞপ্তি আপোষহীন মহানায়ক বঙ্গবন্ধু সাধারণ মানুষের হৃদয়ে অম্লান হয়ে থাকবে। জঙ্গিবাদের মূলোৎপাটনের দাবিতে ছাত্রলীগের মৌন মিছিল বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানাতে চেয়েছিল তারেক রহমান: শোভন প্রেস বিজ্ঞপ্তি জাতির পিতার রক্তের ঋণ শোধ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ আখ্যা জাতীয় শোক দিবসে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ “সেই কালো রাত এবং বঙ্গবন্ধু” বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফেরাতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা জোরদার করা হয়েছে: কাদের কক্সবাজারকে দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে কোরবানি পশুর বর্জ্য পরিষ্কার করলো জেলা ছাত্রলীগ শোক দিবসে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রাণের মানুষদের সমাধিতে গোলাপের পাপড়ি ছড়ালেন শেখ হাসিনা ১৫ ই আগষ্টের খুনি ও ২১ শে আগষ্টের গ্রেনেড হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে যশোর ছাত্রলীগের মানববন্ধন আজ পিতা হারানোর শোকে কাঁদবে বাঙালি

মঙ্গল গ্রহে ব্যবহার উপযোগী রোবট বানালো লিডিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা…

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১১:৩০ প্রিন্ট

সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থীরা একটি চমকপ্রদ রোবট তৈরি করেছেন যেটি বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশে এমনকি দূর মঙ্গলগ্রহেও কাজ করতে সক্ষম। রোবটটি তৈরি করেছেন উক্ত বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ আহমেদ প্রবাল এবং ফাহিম আহমদ হামীম। ফাহিম আহমদ হামীম সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের একজন কর্মী। এ ব্যাপারে ফাহিম আহমদ হামীম যোগাযোগ করলে তিনি জানান , অনেক দিন ধরে বিজ্ঞানীরা মানুষ বসবাসের জন্য পৃথিবীর বাইরে বিকল্প একটি আবাসস্থল খুঁজে আসছেন। এরই অংশ হিসেবে আমরা এই “মারস্ রোবার” রোবটটি বানাই। যেটিকে পৃথিবীতে বসে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালানো যাবে। রোবটে ৪টি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়ছে যা দিয়ে মঙ্গলে স্থাপিত হলেও রোবটের সকল কর্মকান্ড পৃথিবী থেকে পর্যবেক্ষণ করা যাবে। এই রোবটের প্রধান কাজ হচ্ছে- মাটি, পাথর ইত্যাদি পরীক্ষা-নিরীক্ষা, ভিন্ন গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব অনুসন্ধান, আশপাশের আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ ইত্যাদি। এই কাজগুলো করার জন্য রোবটটিতে বিভিন্ন ধরনের সেন্সর আছে যেমন- গ্যাস, টেম্পারেচর, সোনার, ম্যাজারিং, ওয়েট সেন্সর ইত্যাদি। এই ব্যাপারে লিডিং ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের বিভাগীয় প্রধান এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন ‘এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা বরাবরই গবেষণায় ভালো করে আসছে। এর আগে ইমতিয়াজ ও ফাহিম ভারতের চেন্নাইতে অনুষ্ঠিত “ইন্ডিয়ান রোবারস্ চ্যালেঞ্জ ২০১৮”- এ এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় স্থান এবং বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছিল। তাছাড়া দেশে অনুষ্ঠিত অনেক রোবটিক্স প্রতিযোগিতায় তারা প্রথম স্থান অধিকার করেছে। ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এর পৃষ্টপোষকতায় ও উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ কামরুজ্জামান চৌধুরীর দিকনির্দেশনায় এই বিভাগের শিক্ষকদের উৎসাহ ও সঠিক দিকনির্দেশনা তাদের ভালো কিছু করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। আমি ইমতিয়াজ ও ফাহিম-এর সুস্বাস্থ্য ও মঙ্গল কামনা করছি’।
এই প্রজেক্টে সুপারভাইজার ছিলেন ইইই বিভাগের প্রভাষক জনাব আশরাফুল ইসলাম রাকিব এবং কো-সুপারভাইজার ছিলেন প্রভাষক জনাব আবু শাকিল আহমেদ। 

পাঠকের মতামত:

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে